পানি পান করার উপকারিতা

পানি পান করার উপকারিতা সম্পর্কে জানুন

পানি পান করার উপকারিতা: পানির অপর নাম জীবন। পানি ছাড়া বেঁচে থাকা সম্ভব না। তাই আমাদের নিয়মিত পরিমান মতো পানি পান করা জরুরি। পানি যেমন দেহের বাহিরে সব কিছু পরিষ্কার রাখে ঠিক তেমনি দেহের ভিতরেও পানির প্রয়োজন আছে। পানি দেহের ভিতর থেকে সব দূষিত পদার্থ ধোয়ে বের করে দেয়। তাই আমাদের সুস্থভাবে বেঁচে থাকতে পানির বিকল্প নেই।

আমাদের পানি পান করার উপকারিতা সম্পর্কে জানতে হবে। যখন পানি পান করার উপকারিতা সম্পর্কে জানবেন তখন বেশি পানি পান করার ইচ্ছা জাগবে মনে। শরীরে সাধারণ কোনো সমস্যা হলে বুজতে পারবেন কোনটা পানির অভাবে হয়েছে। আমাদের শরীরে প্রায় ৭০% পানি। তাই নিজেকে সুস্থ রাখার জন্য সারা দিনে কমপক্ষে ২ লিটার পানি পান করতে হবে।

দেহের প্রয়োজন মতো পানি পান করলে শরীরের তাপমাত্রা ঠিক থাকে। পানি শরীরের কোষগুলোকে ঠিক বা সতেজ রাখে। পর্যাপ্ত পরিমান পানি পান না করার ফলে শরীর দুর্বল হয়। দেহে বিভিন্ন রোগ বাসা বাঁধতে শুরু করে। তাই পরিমান মতো পানি পান করার মাধ্যমে শরীর সুস্থ রাখা যায়। আমাদের উচিত সকালে ঘুম থেকে উঠেই পরিমান মতো পানি পান করা। কারণ সারা রাত পানি না পান করার কারণে দেহে পানির অভাব দেখা দেয়।

পানি: পানি হলো অজৈব স্বাদ হীন গন্ধহীন এবং বর্ণহীন একটি রাসায়নিক পদার্থ। পানির রাসায়নিক সংকেত হলো H2O পানির মধ্যে দুই পরমাণু হাইড্রোজেন এবং এক পরমাণু অক্সিজেন রয়েছে।

পানি পান করার উপকারিতা

পানির অসাধারণ সব উপকারিতা

পানি ওজন কমাতে সাহায্য করে।

ওজন কমানোর জন্য পানি পান করা প্রয়োজন। পানি শরীরের ফ্যাট কমানোর মাধ্যমে ওজন কমাতে সাহায্য করে। পানি পান করার ফলে দেহের অতিরিক্ত ফ্যাট ঝরে পরে। পানি বিপাক ক্রিয়ায় সাহায্য করে যার ফলে হজম ভালো হয়।

পানি দেহের দূষিত পদার্থ বের করে।

আমাদের খাবার হজমের সময় বা শরীরে বিভিন্ন ক্রিয়ার কারণে দেহে দূষিত পদার্থ জমা হয়। এসব পদার্থ শরীর থেকে বের করা খুব জরুরি। এসব পদার্থ না বের করলে একসময় বড় কোনো রোগ হওয়ার সম্ভবনা থাকে। পানি শরীরের সব দূষিত পদার্থ প্রস্রাবের সঙ্গে বের করে দেয়। যার ফলে আমরা অনেক রোগ থেকে রক্ষা পায়।

ক্যালোরি কমায়

পানি ক্যালোরি কমাতে সাহায্য করে। প্রতিদিন সকালে খাবার খাওয়ার ৩০ মিনিট আগে পানি পান করুন। এতে খাবার কম খেতে ইচ্ছে করবে এবং পেট ভালো থাকবে।

মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখে

প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠেই খালি পেটে পানি পান করলে সারা দিন শরীর মন ভালো থাকে। সকালে পানি পান করার ফলে মানসিক বিকাশ ঘটে। স্মরণ শক্তি বৃদ্ধি পায়। মানসিকভাবে ভালো এবং সুস্থ থাকার জন্য সকালে পানি পান করা জরুরি।

হজমে সাহায্য করে।

পরিমান মতো পানির অভাবে খাবার ভালভাবে হজম হয় না। যার ফলে পেটে সমস্যা হয়। বধ হজম বা খাবার সঠিভাবে হজম না হলে শরীর ঠিক থাকে না। তাই খাবার সঠিকভাবে হজম হওয়ার জন্য পানি প্রয়োজন। সকালে হালকা গরম পানি খেলে সারা দিন ভালো হজম হয়। গরম পানি খাবারকে ভাঙ্গতে সাহায্য করে। ফলে হজমের উন্নতি ঘটে। সঠিকভাবে খাবার হজমের উপকারিতা অনেক বেশি।

পানি পান করার উপকারিতা

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

দেহে পানির অভাব হলে দেহের অব্ভন্তরীন কাজে ব্যাঘাত ঘটে। যার ফলে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে গেলে যেকোনো রোগ সহজে শরীরে বাসা বাঁধতে পারে। পানি শরীরের সব ধরণের জীবাণুকে প্রতিরোধ করে।

আরও পড়ুন: পুশ আপের উপকারিতা: প্রতিদিন কয়টি পুশ আপ করা জরুরি

ত্বক উজ্বল রাখে

নিয়মিত পানি পান করলে শরীরের শুষ্ক ভাব দূর হয়। ত্বক মসৃন হয়। সকালে খালি পেটে পানি পান করলে মুখের ব্রণ দূর হয়।

পানি নিয়ে মানুষের কিছু প্রশ্ন

আমাদের সারা দিনে কতটা গ্লাস পানি পান করতে হবে ?

৬ থেকে ৭ গ্লাস।

পানির রাসায়নিক সংকেত কি ?

পানির রাসায়নিক সংকেত (H2O)

পানি পান করার উপকারিতা

আমাদের শেষ কথা।

পানি হলো প্রাণী জগতের খুব প্রয়োজনীয় একটা পদার্থ। পানি ছাড়া কোনো প্রাণীর অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখা সম্ভব না। সকল প্রাণী এবং উদ্ভিদের জন্যই পানি অপরিহার্য উপাদান। আমাদের শরীর ভালো রাখার জন্য পানি অপরিহার্য উপাদান। শুধু মানুষের দেহের জন্যই পানি অপরিহার্য তা নয়। চাষাবাদ বিভিন্ন ফসল উৎপাদন করার জন্যও পানি খুব জরুরি উপাদান। আমাদের পানির গুরুত্ব বুঝতে হবে। নিয়ম অনুযায়ী প্রয়োজন অনুযায়ী আমাদের পানি পান করতে হবে। আরো নানা রকম টিপস জানতে আমাদের হোম পেজ ভিসিট করুন।

About আবিদ হাসান আবির

Check Also

ডিমের উপকারিতা ও অপকারিতা

ডিমের উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে বিস্তারিত বিবরণ

ডিম কি বিভিন্ন প্রজাতির প্রানীদের স্ত্রী জাতির পাড়া একটি ডিম্বাকার জিনিস যেটা মেমব্রেন স্তর দিয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *