< মিনিকন পিল খাওয়ার নিয়ম | মিনিকন পিলের দাম কত? - সঠিক তথ্যের ঘর
রিভিউশারীরিক স্বাস্থ্যস্বাস্থ্য

মিনিকন পিল খাওয়ার নিয়ম | মিনিকন পিলের দাম কত?

মিনিকন পিল এর কাজ কি

মিনিকন minicon

বাচ্চা প্রসব করছেন এই রকম মায়েদের জন্য মিনিকন পিল খুবই উপকারী একটা বড়ি। বাচ্চা দুধের কোন রকম গুনাগুন নষ্ট হয়না মিনিকন খেলে। মিনিকন এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও অন্যান্য পিল এর চাইতে কম। মিনিকন এসএমসি কোম্পানির তাই খুবই কার্যকরী। বাজারে মিনিকন ছাড়াও আরো অনেক ধরনের পিল পাওয়া যায়। তবে বাচ্চা দুধ খেলে মিনিকন খাওয়াতে হবে।

মিনিকন পিল খাওয়ার নিয়ম

মিনিকন পিল (minicon pill) মাসিক শুরু হওয়ার প্রথম দিন থেকে ৫ দিন মধ্যে খাওয়া শুরু করা যায়। মহিলা যদি নিশ্চিত হন যে, তিনি গর্ভবতী নন তবে প্রয়োজনে যে কোনো দিন থেকে শুরু করতে পারেন । গর্ভপাত করিয়েছেন এমন মহিলারা গর্ভপাত এর পরবর্তী দিন থেকে খাওয়া শুরু করতে পারবেন। খাবার বড়ি পানি দিয়ে গিলে খেয়ে হয়। প্রতিদিন একই সময় বড়ি খাওয়া ভালো। বড়ি খাওয়ার সবচেয়ে ভালো সময় হচ্ছে, রাতে খাওয়া পর। অর্থাৎ ঘুমানোর আগে।

আরো পড়ুনঃ  আই-পিল খাওয়ার নিয়ম | i-pill |ইমার্জেন্সি পিল

মিনিকন পিলের দাম কত | minicon pill bangla price

মিনিকন আপনার নিকটস্থ ফার্মেসী যে কোন সময় সংগ্রহ করতে পারবেন। মিনিকন পিল এর দাম ৪২.০০ টাকা মাত্র।

মিনিকন পিল খাওয়ার কত দিন পর মাসিক হয়?

মিনিকন মাসিকের বন্ধ হওয়া পর দিন থেকে ৫ দিনের মধ্যে বড়ি খাওয়া শুরু করতে হবে। কোন কারণে মাসিক শুরু হতে দেরি হলে চিন্তার কোন কারণ নেই। নিয়ম অনুযায়ী পিল খেতে থাকুন। সন্দেহ হলে কাঠি বেবি চেক করে দেখুন।

মিনিকন পিল খাওয়ার কতদিন পর সহবাস করা যায়

আপনি মিনিকন পিল খাওয়ার দিন থেকে সহবাস করতে পারবেন। তবে মাসিক অবস্থায় সহবাস করবেন না। মাসিক অবস্থায় সহবাস করা ইসলামিক দৃষ্টিতে হারাম।

মিনিকন পিল কি

 

মিনিকন পিল হচ্ছে জন্ম নিয়ন্ত্রণ করার বড়ি। এটি জন্ম নিয়ন্ত্রণ অর্থাৎ পরিবার পরিকল্পনা কাজে খাওয়া হয়। মিনিকন বড়ি শুধু মাত্র মহিলাদের খেতে হয় জন্ম নিয়ন্ত্রণ করার জন্য।

মিনিকন পিলের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া | Minicon pill side effects

মিনিকন পিল ব্যবহারের প্রথম দিকে (৩ থেকে ৪ মাস) ছোটখাটো পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে ।তবে অন্যান্য পিল এর চাইতে এই সমস্যা গুলো কম কম দেখা দেয়। সাধারনত পিল খেলে যেসকল সমস্যা গুলো যেমন-

  • উচ্চ রক্তচাপ দেখা দিতে পারে।
  • স্তন ভারী বোধ হওয়া এবং স্তন স্পর্শ কালে ব্যথার অনুভুতি।
  • দুই মাসিকের মধ্যবর্তী সময়ে ফোঁটা ফোঁটা রক্তস্রাব।
  • বিমর্ষতা দেখা দিতে পারে।
  • বমি বমি ভাব হতে পারে।
  • মাঝে মাঝে মাথা ধরা।
  • মুখে ব্রন উঠতে পারে।
  • ওজন বাড়তে পারে।
  • যে সমস্ত মহিলা মায়োকার্ডিয়াল ইনফারকশন, স্ট্রোক ইত্যাদি-এ আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি আছে, তাদের ঝুঁকি আরো বাড়িয়ে দেয়।
  • ক্লোয়াজম বা গর্ভবস্থার মতো মুখের ত্বকের রঙের পরিবর্তন হতে পারে ।
  • শিরার রক্ত জমাট বেধে যাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায় । তাই অতীতে বা বর্তমানে যাদের এই সমস্যা হয়েছে, তারা ইস্ট্রোজেন সমৃদ্ধ মিশ্র খাবার বড়ি খেতে পারবেন না ।
আরো পড়ুনঃ  পানি পান করার উপকারিতা, নিয়ম এবং দৈনিক কত লিটার পানি পান করা উচিত

সুখী বড়ি খাওয়ার নিয়ম

সুখী পিল খাওয়ার নিয়ম
মাসিক শুরু হওয়ার প্রথম দিন থেকে ৫ দিন মধ্যে খাওয়া শুরু করা যায়। মহিলা যদি নিশ্চিত হন যে, তিনি গর্ভবতী নন তবে প্রয়োজনে যে কোনো দিন থেকে শুরু করতে পারেন । গর্ভপাত করিয়েছেন এমন মহিলারা গর্ভপাত এর পরবর্তী দিন থেকে খাওয়া শুরু করতে পারবেন। খাবার বড়ি পানি দিয়ে গিলে খেয়ে হয়। প্রতিদিন একই সময় বড়ি খাওয়া ভালো। বড়ি খাওয়ার সবচেয়ে ভালো সময় হচ্ছে, রাতে খাওয়া পর। অর্থাৎ ঘুমানোর আগে। সাদা বড়ি শেষ হলে খয়েরী বড়ি খাওয়া শুরু করতে হবে। খয়েরী বড়ি খাওয়া অবস্থায় মাসিক শুরু হবে। কোন কারণে মাসিক হতে দেরি হলে চিন্তা করার প্রয়োজন নেই।

১ দিন সুখী বড়ি খেতে ভুলে গেলে কি করবেন?


সুখী বড়ি একদিন খেতে ভুলে গেলে যখনি মনে পড়বে সাথে সাথে ১ বড়ি খেয়ে নিবেন। এবং সেই দিনের বড়িটি যথা সময়ে খেয়ে নিতে হবে।
পর পর ২দিন খেতে ভুলে গেলে যখনি মনে পড়বে ১ টি বড়ি খেয়ে নিতে হবে। এবং সেই দিনের বড়ি ও যথা সময়ে খেতে হবে। এর পর পরবর্তী ৩ দিন কনডম ব্যবহার করবেন। অথবা সহবাস থেকে বিরত থাকবেন।

আরো পড়ুনঃ  মানুষের শরীরে কত ব্যাগ রক্ত থাকে

You cannot copy content of this page

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker