কিভাবে চুলা পরিষ্কার করবেন

কিভাবে চুলা পরিষ্কার করবেন: চুলা পরিষ্কারের সহজ উপায়

চুলা কিভাবে পরিষ্কার করবেন: চুলা আমাদের প্রতিদিন ব্যবহার করতে হয়। তা ছাড়া আপনার রান্না ঘরের প্রধান বস্তুটি হলো চুলা। প্রতিদিন চুলা ব্যবহার করার কারণে একসময় ময়লা পরে যায়। তাই আমাদের চুলা পরিষ্কার করা দরকার। আজকে আমরা বলবো কিভাবে চলা পরিষ্কার করবেন খুব সহজ উপায়।

অপরিষ্কার চুলাতে রান্না করা যেমন অসুবিধা তেমনি শরীরের জন্য ক্ষতিকর। অপরিষ্কার চুলাতে ময়লা হওয়ার কারণে অনেক রোগ জীবাণু থাকতে পারে। তাই নিয়মিত চুলা পরিষ্কার করা দরকার। চুলা পরিষ্কার করা খুব জামেলার একটি কাজ। কিন্তু এটার পরিষ্কার পদ্ধতি জানতে পারলে খুব সহজেই পরিষ্কার করা সম্ভব। সম্ভব হলে আপনি চুলা প্রতিদিন পরিষ্কার করুন। এতে আপনার চুলা অনেক দিন ব্যবহার করতে পারবেন।

আরও পড়ুন:

চুলা পরিষ্কারের কিছু সহজ উপায়

সাধারণভাবে চুলা পরিষ্কার

অনেক দিন ব্যবহারের কারণে যখন চুলা অপরিষ্কার তখন এটা পরিস্কার করাটা জরুরি। বিভিন্ন রকমের খাবার রান্নার সময় খাবারের ছিটে ফোটা গিয়ে চুলা অপরিষ্কার হয়। চুলা অপরিষ্কার হলে এখান থেকে বিভিন্ন রাসায়নিক ধুয়ার সৃষ্টি হতে পারে। এসব ধোয়া শরীরের জন্য খুব ক্ষতিকর।

সাধারণভাবে চুলা পরিষ্কার বলতে আপনি প্রতিদিন রান্নার শেষে চুলা পরিষ্কার করতে পারেন। রান্নার করার পরে চুলা অফ করে হালকা গরম থাকা অবস্থায় একটা নেকড়া ভিজিয়ে ঘষে পরিষ্কার করতে পারেন। তবে খেয়াল রাখবেন অতিরিক্ত গরম থাকা অবস্থায় পরিষ্কার করবেন না। গরম থাকা অবস্তায়পরিস্কার করলে আপনার হাত পুড়ে যেতে পারে।

সাধারণভাবে চুলা পরিষ্কার করার সময় আপনি ডিটারজেন্ট ব্যবহার করতে পারেন আপনার প্রয়োন মতো। প্রতিদিন এভাবে অল্প পরিষ্কার করলে আপনাকে পরে একসাথে অনেক পরিশ্রম করতে হবে না। প্রতিদিন এভাবে পরিষ্কার করার ফলে আপনার চুলা অনেক দিন ব্যবহার করা যাবে।

কিভাবে চুলা পরিষ্কার করবেন

লবন দিয়ে চুলা পরিষ্কার করা

চুলা ময়লা হওয়ার পরে পরিষ্কার করা দরকার। চুলা পরিষ্কার করার অনেক উপায়ের মধ্যে একটি হলো লবন দিয়ে চুলা পরিষ্কার করা। আমরা সবাই মোটা লবন দেখেছি। এই মোটা লবন এমন একটি উপাদান যা দিয়ে আমরা চুলা পরিষ্কার করতে পারি। লবন দিয়ে চুলা পরিষ্কার করার জন্য ২৫০ গ্রাম লবন আধা লিটার পানিতে মিশাবো। এই পানি দিয়া আমরা ওভেনকে পরিষ্কার করবো।

লেবু দিয়ে চুলা পরিষ্কার পদ্ধতি

লেবু এমন একটি ফল যাতে অনেক উপাদান বিদ্ধমান। লেবুতে অনেক রাসায়নিক উপাদান রয়েছে। লেবু অনেক কাজের জন্য ব্যবহার করা হয়। লেবুতে রয়েছে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং এন্টিসেপটিক বৈশিষ্ট্য যা একটি প্রাকৃতিক গ্রীস রিমুভার। লেবুর এসব উপাদানের জন্যই লেবু চুলা পরিষ্কারের কাজে ব্যবহার করা হয়।

২ টি লেবুকে চেপে ধরে রস বের করে ওভেনে রাখুন। এবং ২৫০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় উত্তপ্ত করুন। এতে ওভেনের ভিতরে সকল দুর্গন্ধ এবং ময়লা চলে যাবে। এবং ব্যকটেরিয়া মারা যাবে।

ভিনেগার ব্যবহার পদ্ধতি

চুলা পরিষ্কার করার আর একটি উপাদান হলো ভিনেগার। ভিনেগার দিয়ে সহজেই চুলা পরিষ্কার করা যায়। ভিনেগার চুলার মধ্যে বা ওভেনের মধ্যে থাকা দুর্গন্ধ দূর করতে সাহায্য করে। চুলা পরিষ্কার করার জন্য সাদা ভিনেগার ব্যবহার করা হয়। ভিনেগার স্প্রে করে ব্যবহার করা যেতে পারে। ভিনেগারের ব্যবহারের ফলে চুলাতে লেগে থাকা গন্ধ দূর হয়।

কিভাবে চুলা পরিষ্কার করবেন

বেকিং সোডা দিয়ে পরিষ্কার

এই উপাদানটি চুলা পরিষ্কার করার জন্য খুব ভালো কাজ করে। বেকিং সোডা দিয়ে পরিষ্কার করার জন্য কিছুটা গরম অবস্থায় এর মধ্যে পানি এবং সোডা দিয়ে কয়েক ঘন্টা রেখে দিয়ে পরিষ্কার করে ফেলেন। এতে ওভেনের ভিতরে থাকা ব্যকটেরিয়া মারা যাবে এবং বাজে গন্ধ দূর হবে।

আমাদের শেষ কথা

এত কিছুর পরেও যদি ময়লা পরিষ্কার না হয় তবে রাসায়নিক ক্লিনার ব্যবহার করতে পারেন। ক্লিনার ব্যবহার করার সময় গ্লাভস ব্যবহার করবেন। ক্লিনার থেকে আপনার হাত সুরক্ষা করার জন্য গ্লাভস ব্যবহার করা জরুরি।

পরিষ্কার করার সময় রান্নাঘরের দরজা জানালা খুলে দিন যাতে বাতাস আসা যাওয়া করতে পারে। এবং গ্যাস গুলো বাতাসের সাথে বাহিরে যেতে পারে। স্প্রে দিয়ে সমস্ত দাগের উপর সরিয়ে দেন এবং ঘষা মজা করুন। তার প ভালোভাবে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলেন যাতে পরে রান্না করার সময় খাবারের সাথে কোনো গন্ধ লেগে না থাকে।

About আবিদ হাসান আবির

Check Also

রান্না ঘরের ভুল কাজ

রান্না ঘরের ১০টি ভুল কাজ (যেগুলো আপনাকে জানতে হবে )

আমাদের বাড়ির খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি জায়গার নাম রান্নাঘর। রান্না ঘরের ভুল কাজ গুলো করা একদম …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *