Breaking News
ওজন কমানোর উপায়

ওজন কমানোর সহজ উপায় (গুরুত্বপুর্ণ ১৬ টি টিপস আপনার জানা দরকার)

ওজন কমানোর সহজ উপায় নিয়ে আমাদের এই কনটেন্টটি লিখা। আমাদের যাদের শরীরের ওজন প্রয়োজনের তুলনায় অতিরিক্ত। তারা সবসময় চেষ্টা করি আমাদের ওজন কিভাবে ঠিক রাখা যায় । আমরা আমাদের ওজন নিয়ন্ত্রনে রাখার জন্য অনেক কিছুই করি। অনেকেই নিয়ন্ত্রনে রাখতে পারি আবার অনেকেই পারি না। এত সব নিয়ম মেনেও যদি ওজন ঠিক না থাকে। তাহলে ত খুবই জামেলার একটা বিষয়। আমাদের ব্লগে আপনি পাবেন ওজন কমানোর সহজ উপায়। ওজন কমানোর জন্য আপনি খাওয়া কমিয়ে দেন। তবে একদম না খেয়ে থাকবেন না।
 
তবে এটা সত্যি কথা যে কারো ওজন যদি একবার অতিরিক্ত বেড়ে যায়। তাহলে কমানো একটু কষ্টকর। আপনি অনলাইনে ওজন কমানোর সহজ  উপায় লিখে সার্চ করলে অনেক পোস্ট পাবেন। ওজন কমানোর এসব উপায় গুলো থেকে আপনি আপনার পছন্দমতো একটি উপায় বেছে নিন। এবং নিয়মানুযায়ী চেষ্টা করতে থাকুন। সত্যি যদি আপনি আপনার ওজন কমাতে চান। তাহলে আপনাকে কঠিন কিছু নিয়ম অনুসরন করতে হবে।
 
ওজন কমানোর নিয়ম হল ধিরে ধিরে কমানো । আপনি চাইলেই একবারে অনেক বেশি ওজন কমাতে পারবেন না। এতে আপনার সমস্যা হতে পারে। তাহলে আসুন আমরা জেনে নেয় ওজন কমানের সহজ কিছু উপায়।

Table of Contents

অতিরিক্ত ওজনের সমস্যা

আপনার প্রয়োজনের থেকে বেশি ওজন হওয়া মানেই আপনার শরীরে রোগ বাসা করার সম্ভভনা বেড়ে যাওয়া।
 
প্রথমত, আপনাকে জানতে হবে অতিরিক্ত ওজনের কুফল সম্পর্কে। এবং আপনাকে আপনার ওজনের দিকে খেয়াল রাখতে হবে । অতিরিক্ত ওজন আপনার শরীরের জন্য মারাক্তক ঝুঁকিপূর্ণ।
 
অতিরিক্ত ওজনের কারনে আপনার শরীরে রক্তে চর্বি বেড়ে যাওয়া, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, হৃদরোগ ইত্যাদি সমস্যার কারণ হিসেবে বাড়তি ওজন চিহ্নিত হয়েছে।
 
অতিরিক্ত ওজন বেড়ে যাওয়ার আর নানা অসুবিধা রয়েছে । অতিরিক্ত ওজন ভেরে গেলে মানুষের শরীরের সুস্থতা বা সৌন্দর্য বলতে কিছুই থাকে না। রক্ত চলাচলে বাধা আসে আল্প পরিশ্রমেই ক্লান্তি আসে। এছারাও আরও অনেক সমস্যা রয়েছে। তাই আমাদের ওজন খুব বেশি খেয়াল রাখার একটি বিষয় ।

ওজন বেড়ে যাওয়ার প্রধান ২ টি কারণ

প্রথমতঃ আপনার প্রতিদিনের খাবারের দিকে খেয়াল না রাখা। অতিরিক্ত খাবার খাওয়া বা ওজন বেড়ে যায় এমন খাবার থেকে বিরত না থাকা।
দ্বিতীয়তঃ প্রতিদিন ২ ঘণ্টা শারিরীক ব্যায়াম বা নিৰ্দিষ্ট পরিমান পরিশ্রম না করা।

কেন আমাদের ওজন কমানো প্রয়োজন

সুস্থ সুন্দর জীবন জাপন করতে চাইলে আমাদের অতিরিক্ত ওজন কমানো বা ওজন নিয়ন্ত্রনে রাখা অতি জরুরি একটি বিষয়। আমাদের অতিরিক্ত ওজন কমানোর জন্য বিভিন্ন উপায় খুজে বের করতে হবে। শরীরকে রোগমুক্ত রাখার জন্য, আমাদের প্রতিদিন ব্যায়াম করতে হবে। ওজন পরিমান মত থাকলে শরীর সুস্থ থাকে। এবং আপনাকে দেখতেও স্মার্ট লাগবে।
Also Read:

ওজন কমানোর সহজ ১৬ টি উপায়

১. প্রতিদিন গ্রীন টি খাওয়া

আপনি আপনার ওজন কমানোর জন্য প্রতিদিন গ্রীন টি খেতে পারেন। আপনি এটা প্রতিদিন ১ কাপ খেলে প্রতি সপ্তাহে ৪০০ কিলরি ওজন কমবে। এতে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা আপনার শরীরকে ঠিক রাখে।

২. বেশি করে শাক-সবজি ও ফলমূল খাবেন।

বেশি পরিমানে শাক সবজি এবং ফল খাবেন। এতে আপনার শরীরের ওজন কমবে।

৩. ওজন বেড়ে যায় এমন খাবার না খাওয়া

যেসব খাবার খেলে আপনার ওজন বেড়ে যাই সেগুলো থেকে আপনাকে দূরে থাকতে হবে।

৪. খাবারের মেনু ঠিক করা

যে দিন থেকে ওজন কমানোর জন্য চেষ্টা শুরু করবেন। সেদিন থেকেই আপনার খাবারের মেনু পরিবরতন করে নিবেন। ওজন কমে এমন খাবার মেনুতে রাখবেন।

৫. বেশি পরিমানে পানি পান করা

আপনাকে প্রতিদিন পরিমান মত পানি পান করতে হবে। বেশি পরিমানে পানি পান করার মাধমে শরীরের অতিরিক্ত ফ্যাট কমানো সম্ভব। আপনাকে প্রতিদিন পরিমান মত পানি পান করতে হবে। বেশি পরিমানে পানি পান করার মাধমে শরীরের অতিরিক্ত ফ্যাট কমানো সম্ভব।

৬. ফোন কথা বা চেট করার সময় হাঁটাহাঁটি করা

আপনি যখন ফোন কথা বলবেন তখন এক স্থানে বসে বা দারিয়ে থাকবেন না। একটু হাঁটাহাঁটি করে কথা বলুন এতে আপনার শরীরের ব্যায়াম হবে।

৭. চিনি কম খাওয়া

আমরা যারা ওজন কমানোর জন্য চেষ্টা করতেছি। তাদের অবশ্যয় চিনি বা মিষ্টি জাতীয় খাবার কম খেতে হবে। কারন চিনি বা মিষ্টি জাতীয় খাবার আপনার শরীরের ওজন আরও বাড়িয়ে দিবে।

৮. প্রতিদিন শসা খাওয়া

ওজন কমানোর জন্য আপনি প্রতিদিন শসা খেতে পারেন । এতে ভাল উপকার পাবেন।

৯. ক্যালরি বিহীন ও আঁশযুক্ত খাবার বেশি খাওয়া

অবশ্যয় আপাকে প্রতিদিন ক্যালরি বিহীন ও আঁশযুক্ত খাবার খেতে হবে। যেমন, সালাদ, সবজি, স্যুপ। না হলে আপনার ওজন কমার থেকে আরও বেশি বেড়ে যাবে।

১০. টেবিলে রকমারি খাবার কম রাখা

আপনার খাবার টেবিলে আপনি যে খাবার গুলো রাখবেন। এগুলো আপনার শরীরের ওজন এর দিকে খেয়াল করে রাখবেন। কারন খাবার টেবিলে বেশি রকমারি খাবার রাখলে আপনার বেশি খেতে ইচ্ছা করবে।

১১. কোমল পানীয় ও তেলে ভাজা খাবার খাওয়া যাবে না।

আমারা সবাই প্রায় এই ভুলগুলো করে থাকি। ওজন কমাতে চাই আবার তেলে ভাজা বা কোমল পানিয় খাবারও খায়। এটা করলে আপনার ওজন কখনই কমবে না। তাই এটা বর্জন করুন।

১২. তেল মশলা যতটা সম্ভব কম খাওয়া

রান্না করার সময় তেল মশলা কম ব্যাবহার করতে হবে। বেশি পরিমানে তেল মশলা আপনার ওজন বাড়িয়ে দিবে ।

১৩. প্রতিদিন ব্যায়াম করা

আপনাকে প্রতিদিন সকালে এবং বিকালে কমপক্ষে ১৫ মিনিট করে ব্যায়াম করতে হবে। ব্যায়ামের মাধ্যম যেমন আপনার ওজন কমবে। তেমনি আপনার শারীরিক অবস্থাও ভাল থাকবে।
ওজন-কমানোর-ব্যায়াম

১৪. খাবার গিলে ফেলার আগে খুব ভালো করে চিবিয়ে খাবেন।

আমারা অনেক খাবার ভাল করে চিবিয়ে খায় না। তারাতারি খাওয়ার জন্য খাবার গিলে খায়। এই রকম করে খাবার খাওয়া শরীরের জন্য ঝুঁকি । তাই খাবার চিবিয়ে আস্তে আস্তে খাবেন।

১৫. সালাদে কোন মাছ বা মাংসের টুকরা না মেশাবেন

ভুল করেও সালাদে কখনও মাছ বা মাংসের টুকরা মেশাবেন না। এই ধরনের সালাদ আপনার ওজন বাড়িয়ে দিবে।

১৬. সবসময় কাজ করা

সর্বশেষ, ওজন কমানোর আরেকটি ভালো উপায় হল সবসময় নিজেকে কাজে ব্যস্ত রাখা। কাজ করলে আপনার শরীর ও মন দুইটাই ভালো থাকবে।

আমাদের শেষ কথা

আপনি যদি ভালো এবং সুস্থ থাকতে চান। তবে আপনার ওজন ঠিক রাখুন। ওজন কমানোর উপায় মেনে নিয়মিত ওজন কমাতে পারেন। উপরের এই ওজন কমানোর উপায় আপনাকে আপনার ওজন কমাতে হেল্প করবে। নিয়মিত ব্যায়াম, এবং খাবার নিয়ন্ত্রনের মাধ্যমে আপনি ওজন কমাতে পারেন। আমাদের এই ব্লগে স্বাস্থ্য বিষয়ক আরও অনেক টিপস আছে। আপনি চাইলে দেখে আসতে পারেন।

About আবিদ হাসান আবির

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *